গরম এলেই নবজাতকের শরীরে ঘামাচি ও ন্যাপি র‍্যাশের মাত্রা বেড়ে যায়। গরমে নবজাতকের পোশাক কেমন হওয়া উচিত?

নবজাতকের যত্ন বরাবরই একটু বেশি করা হয়। আর এই দুর্বিষহ গরমে তো কথাই নেই। নবজাতকের যত্ন প্রসঙ্গে জানিয়েছেন ঢাকার হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ এরশাদুর রহিম।

তিনি বলেন, গরমে সব শিশুকেই পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা উচিত। আর নবজাতকের ক্ষেত্রে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার মাত্রা একটু বেশিই রাখতে হয়। নিয়মিত গোসল করালে অথবা নরম কাপড় ভিজিয়ে গা মুছে দিলে শিশুর জন্য তা আরামদায়ক হবে। এ ছাড়া এতে শিশুর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতাও বজায় থাকে।

এরশাদুর রহিম আরও জানান, নবজাতকের ত্বক খুব স্পর্শকাতর হয় বলে ত্বকের যত্নের ব্যাপারে অভিভাবকদের বাড়তি খেয়াল রাখতে হবে। অনেক অভিভাবকই প্রচুর পরিমাণে পাউডার বা তেল শিশুর ত্বকে ব্যবহার করেন, যা শিশুর ত্বকের জন্য ক্ষতিকর। অতিরিক্ত পাউডার ব্যবহারে শিশুদের ত্বকের রোমকূপগুলো বন্ধ হয়ে যায় বলে সাধারণ শারীরিক প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত হয়। এতে শিশুর ঘামাচি ও ন্যাপি র‌্যাশও হতে পারে।

গরমে অভিভাবকদের কিছু সাবধানতা বজায় রাখার পরামর্শ দেন এরশাদুর রহিম। তিনি বলেন, অতিরিক্ত রোদে ছোট বাচ্চা নিয়ে বের হওয়া উচিত না। নবজাতকের সামনে হাঁচি-কাশি দেওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। না হলে জীবাণু শিশুকে সহজে আক্রমণ করতে পারে। শিশুকে ঠান্ডা ও স্বস্তিদায়ক পরিবেশে রাখা উচিত। ঘেমে গেলে খেয়াল করে বারবার শুকনো নরম কাপড় দিয়ে গা মুছে দিতে হবে। তিনি বলেন, অবশ্যই এই গরমে শিশুকে সুতির নরম ও আরামদায়ক পোশাক পরানো উচিত। নবজাতকের মাকে প্রচুর পরিমাণে তরলজাতীয় খাবার এবং পানি পান করতে হবে। এতে মায়ের বুকের দুধ থেকে শিশু উপকৃত হবে। স্বাভাবিক যত্নের মাধ্যমেই নবজাতক স্বস্তিতে থাকবে আর অভিভাবকের সচেতনতাই দেবে নবজাতকের সুস্থ ও সুন্দর জীবনের নিশ্চয়তা।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *